সোমবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৯:৪৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
চুনারুঘাট প্রবাসী গ্রুপের সেক্রেটারি নুরুল কালাম আযাদ দরবেশ’র নামে ফান্ডের টাকা আত্মসাদের অভিযোগ নড়াইলে গৃহবধু আত্মহত্যার ২৪ দিন পর প্ররোচনার অভিযোগে থানায় মামলা শশুর গ্রেফতার ত্রিশালে বৈধ মুক্তিযোদ্ধা ১১৩ জন,অবৈধ ৪১ জন নড়াইলে দু’মাদক কারবারীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও জরিমানা অষ্টমীরচর ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু তালেব ফকিরের নির্বাচনী গণসংযোগ চুনারুঘাটে ‘আমার বাড়ি আমার খামার’ প্রশিক্ষণ সম্পন্ন লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জুনিয়ার নার্সের হাতের সিনিয়র নার্স আহত জামাল হোসেন খোকনের ভোট চাইলেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ নির্মিত হলো ভালোবাসা দিবসে উপলক্ষে নাটক “প্রত্ননারী” হবিগঞ্জের চুনারুঘাট-সাটিয়াজুরী রাস্তার নির্মাণ কাজ পরিদর্শন:

জামালপুর – শেরপুর উন্নয়ন প্রকল্পে আরো ১৩৩ কোটি টাকা বরাদ্দ

 আছিব হাসান জামালপুর প্রতিনিধিঃ বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় একনেকের সভায় জামালপুর ও শেরপুর জেলা পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে আরও ১৩৩ কোটি টাকার বর্ধিত প্রকল্পের অনুমোদন পেয়েছে। গত সোমবার (৬ জুলাই) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্পটির অনুমোদন দেন।

আগে অনুমোদিত এবং বাস্তবায়নাধীন ৩৮৭ কোটি টাকার প্রকল্পের সঙ্গে নতুন বরাদ্দ আরও ১৩৩ কোটি টাকা যুক্ত হয়ে মোট ৫২০ কোটি টাকায় উন্নীত হলো এই প্রকল্পটি। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ৫২০ কোটি টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়নাধীন জামালপুর ও শেরপুর জেলার পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দুই জেলার গ্রামীণ জনপদের রাস্তাঘাট, ব্রিজ ও কালভার্ট নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে এই দুই জেলার গ্রামীণ জনপদের সঙ্গে শহরের যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়নের পাশাপাশি গ্রামের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভালো প্রভাব ফেলবে। ফলে গ্রামীণ জনপদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য থেকে শুরু করে অন্য পণ্য পরিবহন ও মানুষের যাতায়াতের দুর্ভোগ লাঘব হবে।

একনেকের সভায় অতিরিক্ত এ বরাদ্দ দেওয়ায় জামালপুর ও শেরপুর জেলাবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপি।

সাবেক বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম এমপির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় জামালপুর জেলা উন্নয়নের এক নতুন যুগে অবস্থান করছে। তারই প্রচেষ্টায় গত জুন মাসের একনেকের সভায় জামালপুর জেলা কারাগার পুনর্নির্মাণের জন্য ২১০ কোটি টাকার প্রকল্প পাস হয়। এই প্রকল্পটিসহ জেলায় অন্তত পক্ষে ৫৫ হাজার কোটি টাকার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের বেশ কিছু প্রকল্প দৃশ্যমান হয়েছে, অনেক প্রকল্প দৃশ্যমান হওয়ার পথে রয়েছে। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের সঙ্গে জামালপুর জেলার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়ন হতে যাচ্ছে। বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়ে ৬৪টি জেলার মধ্যে ১০টি উন্নত জেলার তালিকায় জামালপুর জেলাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন মির্জা আজম এমপি।

নিউজটি শেয়ার করুন


      এ জাতীয় আরো খবর..