বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০১:৩২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নির্মিত হলো ভালোবাসা দিবসে উপলক্ষে নাটক “প্রত্ননারী” হবিগঞ্জের চুনারুঘাট-সাটিয়াজুরী রাস্তার নির্মাণ কাজ পরিদর্শন: রৌমারীতে ” শীতার্তদের উষ্ণতা সরবরাহে সহানুভূতি যুব সংঘ’ চুনারুঘাট ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর মাঝে গরু বিতরণ ভবানীপুর ইউনিয়নের এ যাবতকালের সবচেয়ে বেশি ভোটে নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃশাহীনুর মল্লিক জীবন  লালপুরে আ’লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ এড়াতে প্রশাসনের ১৪৪ ধারা জারি “মোংলায় করোনা প্রতিরোধে ব্র্যাকের গণনাটক প্রদর্শন” শ্রীমঙ্গলে দরিদ্রদের মধ্যে শীতবস্ত্র, মাস্ক ও খাবার বিতরণ শ্রীমঙ্গলে বিষাক্ত পোটকা মাছ খেয়ে বউ শ্বাশুড়ির মৃত্যু হবিগঞ্জ শায়েস্তাগঞ্জ কলিমনগরে সড়ক দূর্ঘটনায় চিকিৎসকসহ নিহত দুই জন

জীবননগরে ক্ষমতার দাপটে রাস্তা সংস্কার কাজে চরম অনিয়ম! জনমনে ক্ষোভ

মুতাছিন বিল্লাহ, বিশেষ প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার দৌলৎগন্জ Gc আকন্দবাড়িয়া R&H সড়ক উন্নয়নে প্রকৌশলীর উদাসীনতায় রাস্তা সংস্কার কাজে চলছে চরম অনিয়ম। দুপাশে সংকোচন, নিম্নমানের ইট আর মাটিভর্তি বালি দিয়ে রাস্তা সংস্কার করার অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সেল- ইউডিসি-জাকা জেভি বিরুদ্ধে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, দীর্ঘদিন পর জীবননগর উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের ডেঙ্গাপাড়া হতে আকন্দবাড়িয়া অভিমুখে রাস্তা সংস্কার কাজ করা হলেও সেখানে শিডিউল অনুযায়ী হচ্ছে না কোন কাজ। রাস্তার দুপাশে মাটি ভরাট করার কথা থাকলেও মাঝে মাঝে দেওয়া হয়েছে মাঝে মাঝে পাশের মালিকানা জমি থেকেও জোর পৃর্বক দেওয়া হচ্ছে। খোয়ার পরিবর্তে সুড়কি আর বালির পরিবর্তে রাস্তার ওপরে মাটি দেওয়া হচ্ছে। তা ছাড়া রাস্তা সংস্কারের সময় উপজেলা প্রকৌশলী অধিদপ্তরের কর্মকর্তা থাকার কথা থাকলেও সেখানে কাউকে চোখে পড়েনি। বরং ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার আর লেবারদের মাধ্যমে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে কাজটি সম্পন্ন হচ্ছে।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, ‘রাস্তা নির্মাণের জন্য এক নম্বর ইট, খোয়া ও বালি দেওয়ার কথা থাকলেও, তা দেওয়া হচ্ছে না। এক নম্বর ইটের পরিবর্তে দেওয়া হচ্ছে ৩ নম্বর ইট। আর খোয়ার পরিবর্তে রাস্তা খুড়ে যে ইট আর সুড়কি হয়েছে, সেগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে । শুধু তাই নয়, বালির পরিবর্তে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান রাস্তার ওপরে মাটি দিচ্ছে। আমরা প্রতিবাদ করাই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার বলে রাস্তার কাজ করছে এমপির ভাই আরিফ আর মনোহরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বকুল মিয়া। পারলে তাদের কাছে যেয়ে বলো রাস্তার কাজ এভাবেই শেষ হবে।’প্রশাসনকে বৃদ্ধা আঙুল দেখিয়ে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে এভাবেই রাস্তা কাজ করছে চুয়াডাঙ্গা ২আসনের সংসদ সদস্যের ভাই আরিফ ।

জনমনে দেখা দিয়েছে চাপা ক্ষোভ রয়েছে নানা প্রশ্ন। রাস্তা শুরুতেই এমন অনিয়ম হলে পিচ করনের সময় কি হবে?

মনোহরপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওর্য়াড সদস্য ইদবারী বলেন, ‘রাস্তা সংস্কারের জন্য ইটের পরিবর্তে সুড়কি আর বালির পরিবর্তে মাটি দিচ্ছে। আমি কাজ করতে নিষেধ করলে তাঁরা আমার কথা না শুনে বলে যদি কোনো সমস্যা হয়, তাহলে মনোহরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বকুল মিয়ার সঙ্গে কথা বল। সে এই রাস্তার কাজ করছে। যার কারণে আমরা আর কোনো প্রতিবাদ করতে পারিনি। তাছাড়া উপেজলা প্রকৌশলী থেকে যে কর্মকর্তা থাকার কথা তাও ছিল না। তাদের মন মতো কাজ করে যাচ্ছে। এ রাস্তা বেশি দিন টিকবে না। আগের যে রাস্তা ছিল, সেটাও এর ছাড়া ভালো ছিল।’
ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বরত ম্যানেজার আ. আলীম বলেন, ‘রাস্তা সংস্কারের জন্য যে মালামাল ব্যবহার করা হচ্ছে, তা শিডিউল অনুযায়ী হচ্ছে। এখানে কোনো অনিয়ম করা হচ্ছে না। যারা অভিযোগ করেছে, তা মিথ্যা অভিযোগ করছে। তাছাড়া যদি কিছু জানার থাকে, তাহলে বকুল মিয়ার সঙ্গে কথা বলেন, তিনি এ কাজ পেয়েছেন তিনিই করছেন।’
ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মালিক এবং মনোহরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বকুল মিয়া বলেন,জীবননগর থেকে আকন্দবাড়িয়া ভায়া ‘কালা গ্রামে রাস্তা সংস্কারের যে কাজ হচ্ছে, এ কাজটি আমি জাকাউল্লার কাছ থেকে কিনেছি। তবে এখানে যে কাজ হচ্ছে, শিডিউল অনুযায়ী হচ্ছে। এখানে কাজে কোনো অনিয়ম হচ্ছে না।’

জীবননগর উপজেলা প্রকৌশলী বোরহান উদ্দিন বলেন,জীবননগর ডেঙ্গাপাড়া মোড় থেকে আকন্দবাড়িয়া যেতে যে রাস্তা সংস্কারে অনিয়ম এবং নিম্নমানের মালামালের ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে, এটি তদন্ত করা হবে। যদি শিডিউল অনুযায়ী কাজ না হয়, তা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান শিডিউল অনুযায়ী রাস্তার কাজ করে দিবে। তা না দিলে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন


      এ জাতীয় আরো খবর..